রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৪০ পূর্বাহ্ন
Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২১, ০৩:৪৩ PM
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে

“শোকাহত ও হৃদয় স্পর্শী স্মৃতি”

মকবুল হোসেন তালুকদার

শহীদ পরিবারের কৃতি সন্তান এবং অকুতভয় মুজিব সৈনিক টাংগাইল জেলা আওয়ামী লীগের বিপ্লবী প্রচার সম্পাদক স্নেহাষ্পদ আলমগীর হোসেন তালুকদারের মৃত্যুর সংবাদটি বুকের পাঁজর ভেংগে যাওয়ার মতো হৃদয় বিদারক একটি দু:সংবাদ। এই তো মাত্র দিন কয়েক আগেও ওর সাথে নিউ ইয়র্ক থেকে টেলিফোনে কথা বলেছি এবং গত সপ্তাহে অসুস্হতার খবর পেয়ে মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে প্রিয় সাথী আলমগীরের দ্রুত রোগ মুক্তির জন্য আন্তরিক দোয়া প্রার্থনা করেছি।

মরহুম আলমগীর হোসেন তালুকদারের পরিবার এবং আমাদের পরিবারের মধ্যে রক্তের কোন সম্পর্ক/বন্ধন বা আত্মীয়তার কোন সম্পর্ক না থাকলেও আমাদের দুই পরিবারের মধ্যে আত্মার বন্ধন, স্নেহ মমতা শ্রদ্ধা ভালবাসা ও সহমর্মিতা সহযোগিতার সম্পর্ক ছিল রক্তের বন্ধন বা আত্মীয়তার বন্ধনের চাইতেও সুদৃড় এবং সুনিবিড়।

তাই তার অকাল মৃত্যুতে অশ্রু সজল এবং ভগ্ন হৃদয় নিয়ে স্মৃতির পাতা থেকে উল্লেখ করতে চাই মরহুম আলমগীর নাটিয়াপাড়া প্রতিরোধ যুদ্ধের পর আমাদের গ্রামের বাড়ী চলে আসে এবং ওর বুদ্ধিমত্তা, সক্রিয় সহযোগিতা ও সাহসিকতায় ২৬ শে মার্চ’৭১ এর পর ঢাকা থেকে নিরাপদ আশ্রয়ের আশায় সখিপুর হয়ে উওর বংগের দিকে যাত্রা মুখী দেশপ্রেমিক পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের কাছ থেকে রাইফেল সংগ্রহ করে সখিপুরে মুক্তি বাহিনী গঠনের প্রস্তুতি গ্রহন করি।

এতদভিন্ন, মরহুম আলমগীরের বড় ভাই মুক্তিযুদ্ধের সাথী শহীদ জাহাংগীর হোসেন তালুকদার ছিল আমার ঘনিষ্ঠ বাল্য বন্ধু। যে কারনে মুক্তিযুদ্ধ কালীন সময়ে কোম্পানী কমান্ডারের দায়িত্ব পাওয়ার সাথে সাথে কোম্পানীটিকে শহীদ জাহাঙ্গীর কোম্পানী হিসাবে নাম করণ করি।

এইতো! মাত্র কয়েকদিন পুর্বে শ্রদ্ধা ভরা দরদী কন্ঠে প্রিয় আলমগীর আমাকে বলেছিল” গুরু দেশে ফিরলে, টাংগাইল আসবেন! আমাকে দেখে যাবেন!”৭১ থেকে মরহুম আলমগীর আমাকে গুরু বলেই সম্মোধন করতো। দীর্ঘদিন ওর সাথে দেখা হয় না। তাই প্রচন্ড ইচ্ছা ছিল এবার দেশে ফিরেই টাংগাইল শহরে যাবো এবং মুক্তিযুদ্ধের সাথী ফজলু, স্মৃতি, কালাম, সবুর ভাই এবং আলমগীরের সাথে কিছুটা হলেও সময় কাটাবো। কিন্তু, হায়! বিধি বাম! আমাদের সক্কলকে ফাঁকি দিয়ে অকালে আমার অত্যন্ত স্নেহের আলমগীর না ফেরার দেশে চলে গেল।

মুক্তিযুদ্ধের সাথী বন্ধু স্মৃতি ভাইয়ের কাছ থেকে আলমগীরের মৃত্যেুর খবর পেয়ে যারপর নাই মুষড়ে পড়ি। খবরটি শুনার পর চোখের পানি বন্ধ করতে পারছিলাম না এবং মনে হচ্ছিল হৃদ পিন্ডের প্রবাহ চলছেনা।তাই বিদগ্ধ অন্তর আত্মা ও ভগ্ন হৃদয় নিয়ে মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে আকুল আবেদন করছি; হে মহান আল্লাহ আপনি আমার প্রিয় সাথী সাদা মনের মানুষ নির্লুভ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব জাতির জনক বংগবন্ধু কন্য শেখ হাসিনার লড়াকু সৈনিক মরহুম আলমগীর তালুকদারকে তার জানা অজানা গুনাহ মাফ করে দিয়ে তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস দান করুন এবং তার শোক সন্তপ্ত পরিবারকে শোক সইবার শক্তি দিন। আমিন।

দোয়া কামনায়: লেখক মুক্তিযোদ্ধা ও কৃষিবিদ মকবুল হোসেন তালুকদার
নিউইয়র্ক, আমেরিকা

Please Share This Post in Your Social Media

এই জাতীয় আরো নিউজ

© All rights reserved © 2020 bd-bangla24.com

Theme Customized By Subrata Sutradhar