শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
কিং খালিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেক্টর ও আভা চেম্বারের মহাসচিবের সাথে জাবেদ পাটোয়ারীর বৈঠক ফরিদগঞ্জের সন্তোষপুরের সন্ত্রাসী হামলায় গ্রেফতার দুই, তিনটি গরু উদ্ধার সোশ্যাল মিডিয়ায় ফোন নম্বর-ইমেইল না রাখার পরামর্শ বিটিআরসির আটক শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড ফরিদপুরের বরকত-রুবেলের ৫৭০৬ বিঘা জমি ও ৫৫ গাড়ি ক্রোকের নির্দেশ ময়মনসিংহ সিটির ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে আইপি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করোনার সবশেষ খবর, ২৫ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার রেলওয়ে নিরাপত্তা ও শিডিউল রক্ষায় ডাবল লাইন নির্মাণ জরুরী: রেলপথ মন্ত্রী ময়মনসিংহ কর্ম এলাকার সমাপ্তি ও বাস্তবায়ন কমিটি গঠন
Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ১০:১০ AM
  • ৩৮ বার পড়া হয়েছে

কৃতজ্ঞ মানুষ আল্লাহর কাছে বেশি প্রিয়

মো: নাসির নিউ জার্সি, আমেরিকা থেকে: এক হাদিসে হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘আমার উম্মতের মধ্যে একটি অংশ প্রকাশ্যে সত্যের ওপর অবিচল থাকবে। আল্লাহর নির্দেশ আসা পর্যন্ত তাদের বিরোধীরা তাদের কোনো ক্ষতি করতে পারবে না।’ আলোচ্য হাদিসের ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, বান্দা যদি তার পালনকর্তার সঙ্গে সঠিক আচরণ করে, মনোবাসনার অনুসরণ না করে তাকে ভয় পায়, ফরজ ওয়াজিবসহ তার ভালোবাসার আমলের মাধ্যমে আনুগত্য প্রকাশ করে, হারাম থেকে বেঁচে থাকে তাহলে আল্লাহতায়ালা তাকে পরিপূর্ণ সওয়াব ও প্রতিদান দিবেন।

তিনি মহান, অধিক সম্মানিত এবং পুরোপুরি পরিশোধকারী। অতএব, পালনকর্তার ভালোবাসার কাজ করলে তিনিও বান্দার ভালোলাগার প্রতিদান দেবেন। এ প্রসঙ্গে আল্লাহতায়ালা বলেন, ‘এবং তোমরা পূরণ করো আমার সঙ্গে কৃত প্রতিজ্ঞা, তাহলে আমি তোমাদের প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি পূরণ করব। আর ভয় করো আমাকেই।’ -সূরা বাকারা : ৪০। আমাদের মনে রাখতে হবে, আল্লাহর আনুগত্য ব্যতীত তার কাছ থেকে কোনো কিছু পাওয়া যায় না। তার আনুগত্যেই রয়েছে শান্তি।

এ প্রসঙ্গে এক হাদিসে হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি মানুষের অসন্তুষ্টির মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের চেষ্টা করে, আল্লাহতায়ালা তার প্রয়োজন পূরণে যথেষ্ট। আর যে ব্যক্তি আল্লাহর অসন্তুষ্টিতে মানুষের সন্তুষ্টি খুঁজে বেড়ায়, আল্লাহতায়ালা তাকে মানুষের ওপর নির্ভরশীল করে দেন।’ -তিরমিজি। ইবাদতের মাঝে সর্বশ্রেষ্ঠ ও কল্যাণের দিক থকে সর্বব্যাপী হচ্ছে দোয়া। দোয়ার মাধ্যমে আল্লাহতায়ালা সব কল্যাণ বর্ষণ করেন। এর মাধ্যমে আল্লাহতায়ালার প্রতি মানুষের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ পায়। আর কৃতজ্ঞ বান্দাকে আল্লাহতায়ালা ভীষণ পছন্দ করেন। সব অপছন্দনীয় কাজ, মসিবত এবং খারাপকে দূর করেন।

দোয়া প্রসঙ্গে আল্লাহতায়ালা বলেন, ‘তোমাদের পালনকর্তা বলেন, তোমরা আমাকে ডাকো, আমি সাড়া দেব। যারা আমার ইবাদতে অহঙ্কার করে তারা সত্বরই জাহান্নামে দাখিল হবে লাঞ্ছিত হয়ে।’ -সূরা মুমিনুন : ৬০। হাদিসে আছে, ‘কোনো মুসলমান আল্লাহর কাছে চাইলে আল্লাহ তার প্রত্যাশিত বিষয় দান করেন অথবা সে বিষয়টি তার আখিরাতের জন্য সঞ্চিত করে রাখেন অথবা তার কোনো বিপদ দূর করে দেন। সাহাবারা বললেন, হে রাসূল (সা.) তাহলে আমরা দোয়া বাড়িয়ে দেব। রাসূলুল্লাহ (সা.) বললেন, আল্লাহর কাছে আরো অধিক রয়েছে।’ বস্তুত দোয়া এমন ইবাদত যার মাধ্যমে আল্লাহতায়ালা সব কাজকে যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করার শক্তি দান করে দেন এবং সব মন্দ ও খারাপকে দূর করে দেন।

Please Share This Post in Your Social Media

এই জাতীয় আরো নিউজ

© All rights reserved © 2020 bd-bangla24.com

Theme Customized By Subrata Sutradhar